Header Border

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল) ৩৪.৯৬°সে

ঝিনাইদহ ও শৈলকুপায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া আহত ১৫ নির্বাচনী অফিস মোটরসাইকেল বাড়ি ভাংচুর

ঝিনাইদহে সদর উপজেলার হাটগোপালপুর ও শৈলকুপা উপজেলার মীনগ্রামে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সতন্ত্র ও নৌকা প্রতিকের প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। দুই প্রার্থী নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুরের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন। মঙ্গলার রাতে সদর উপজেলার পদ্মাকর ইউনিয়নের হাটগোপালপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হন। ভাংচুর করা হয় ৩ টি মোটর সাইকেল। অন্যদিকে মঙ্গলবার বিকাল স্বতন্ত্র প্রার্থীর অফিস ভাংচুরের ঘটনার জের ধরে মঙ্গলবার রাতে শৈলকুপার হাটফাজিলপুর ও আবাইপুর বাজারে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। নৌকা ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্তকদের মধ্যে ইট পাটকেল নিক্ষেপকালে ৫ জন আহত হয় । এ সময় বেশ কয়েকটি ঘর বাড়ি ভাংচুর করা হয়। এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী সমর্থিত মোদাচ্ছের ও মহাসিন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এ বিষয়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হেলাল উদ্দিন অভিযোগ করে জানান, তিনি মীনগ্রামে নির্বাচনী অফিস উদ্বোধন করলে নৌকার সমর্থিত মোক্তার মৃধার কর্মীরা হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। নৌকার প্রার্থী মোক্তার আহমেদ মৃধা পাল্টা অভিযোগ খন্ডন করে বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থীর লোকজন নৌকার অফিসে আগে হামলা চালায় এবং নৌকা সমর্থিত ৩ ব্যক্তির বাড়ীতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। এদিকে ঝিনাইদহের হাটগোপালপুর পুলিশ ফাড়ি সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাতে পদ্মাকর ইউনিয়নের লৌহজঙ্গা গ্রামে নৌকার প্রার্থী সৈয়দ নিজামুল গণি লিটু ও সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী বিকাশ বিশ্বাসের সমর্থকদের মাঝে নির্বাচনী প্রচারণার সময় হাতাহাতি হয়। এ ঘটনার জের ধরে মঙ্গলবার রাত ১১ টার দিকে উভয় পক্ষের লোকজন হাটগোপালপুর বাজারে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু করে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়। এসময় ভাংচুর করা হয় নৌকা ও সতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচন কার্যালয়সহ ৩ টি মোটর সাইকেল। নৌকা প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী সৈয়দ নিজামুল গণি লিটু বলেন, মঙ্গলবার রাতে আমার সমর্থকরা লৌহজঙ্গা গ্রামে ভোটের প্রচারনা করছিল। এমন সময় সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী বিকাশ বিশ্বাসের সমর্থকরা তাদেরকে মারপিট করে। এ সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এসময় সতন্ত্র প্রার্থীর লোকজন আমার নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুর করে। সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী বিকাশ বিশ্বাস বলেন, মঙ্গলবার রাতে আমি নির্বচনী কাজে অচিন্তনগর গ্রামে ছিলাম। এমন সময় খবর পেলাম নৌকা প্রতিকের সমর্থকরা আমার লোকজনের উপর হামলা চালিয়ে কয়েকজনকে আহত করে। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি শেখ মোঃ সোহেল রানা জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। বর্তমানে পস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এঘটনায় উভয় পক্ষের লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে।

Print Friendly, PDF & Email

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

হারিয়েছে
ফিলিস্তিনের ওপর ইসরায়েলের হামলার প্রতিবাদে শৈলকুপায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ
ঝিনাইদহে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে উপহার প্রদান
ঝিনাইদহে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নতুন ভবনের উদ্বোধন
ঝিনাইদহে কৃষকের মাঝে সার ও বীজ বিতরণ
না ফেরার দেশে মুক্তিযুদ্ধে রেডিও ট্রান্সমিটার তৈরীর কারিগর

আরও খবর

Design & Developed By VIRTUAL SOFTBOOK Premium Web & Software Solutions