1. admin@durantoprokash.com : admin :
সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৬:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
শৈলকুপায় একা মাদ্রাসা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা সভাপতি ও ক্যাশিয়ারের বিরুদ্ধে বেতন ভাতা আটকে রাখার অভিযোগ সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁর মুক্তির দাবিতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন আর্জেন্টিনাকে উড়িয়ে টানা দ্বিতীয় জয় ব্রাজিলের কালীগঞ্জে ভিডব্লিউবি কার্ড বিতরণ ও প্রায় ১৯ কোটি টাকার রাস্তার মেরামত কাজের উদ্বোধন হিরো আলমের প্রতীক ‘একতারা’ প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন আর হবে না জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা ট্রাকের ধাক্কায় ভাঙলো ওয়াজ মাহফিলের গেট কুপিয়ে জখম করা হলো কলেজ ছাত্রকে গাজীপুরের কালীগঞ্জে ঐতিহ্যবাহী জামাই মেলায় মানুষের ঢল ভেজাল বীজে ক্ষতিগ্রস্ত শৈলকুপার পেঁয়াজ চাষিদের বিক্ষোভ

দুরন্ত প্রকাশের সম্পাদক মিরাজের উপর হামলার মামলার রায়, আসামী মিজান ও মানিকের কারাদন্ড

দুরন্ত প্রকাশ ডেস্ক :
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৩৮৭ Time View

দুরন্ত প্রকাশের সম্পাদক রাষ্ট্রপতি পদক প্রাপ্ত মিরাজ জামান রাজ’র উপর ২০১৮ সালে হামলার ঘটনায় আসামী মিজানুর রহমান ওরফে বালতি মিজান ও মানিকের তিন মাসের কারাদন্ড দিয়েছে ঝিনাইদহের বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আদালত।

শেরে বাংলা সড়কস্থ দুরন্ত প্রকাশের সাবেক কার্যালয় সেবা ভবনের জায়গা দখলকে কেন্দ্র করে ২০১৮ সালের ৩১ মার্চ মিরাজ জামান রাজ’র উপর উপর্যুপরি হামলা চালায় ঝিনাইদহের ছোট কামারকুন্ড নিবাসী হাসেম আলীর ছেলে তাজ গ্লাস হাউজের মালিক মোঃ মিজানুর রহমান ওরফে বালতি মিজান ও তার কর্মচারী কাঞ্চনপুর নিবাসী নজরুল হেলপারের ছেলে মানিক। সেই ঘটনায় মিরাজ জামান নিজে বাদী হয়ে ঐ বছরের এপ্রিলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। যার নং সিআর-৩৪৩/১৮। প্রায় দীর্ঘ আড়াই বছর বিচার কার্য পরিচালনার পর গত ২৯ নভেম্বর বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট ১ম আদালতের বিজ্ঞ বিচারক গৌতম কুমার ঘোষ রায় প্রদান করেন। মামলার রায়ে দেখা যায় তিনি আসামী মিজান ও মানিককে পলাতক হিসেবে দোষী সাব্যস্ত করে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করেছেন। এবং ওয়ারেন্ট ইস্যুর জন্য আদেশ দিয়েছেন।
এ বিষয়ে মামলার বাদী মিরাজ জামান রাজের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন ‘আদালতের আদেশে আমি সন্তুষ্ট নই। তবুও আদালতের প্রতি আমার সম্মান আছে। দুরন্ত প্রকাশের নামে বন্দোবস্তপ্রাপ্ত সামান্য কিছু সরকারী জমি দখলের জন্য দীর্ঘদিন পায়তারা করছিলো মিজান গং। কিন্তু তৎকালীন জেলা প্রশাসক, ইউএনও ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপে তা করতে পারেনি। এরই ফলশ্রুতিতে আমার উপর হামলা চালানো হয়। তবে এর নেপথ্যে ছিল ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ সদস্য মোস্তাকিম মনির। তারই ফেলানো মাটি দিয়ে জায়গা দখলের চেষ্টা করে এই বালতি মিজান ও মানিক। কিন্তু তাৎক্ষনাত উপস্থিত না থাকায় মোস্তাকিম মনিরকে আসামী করা যায়নি। কিন্তু মিজান ও মানিক তাদের শাস্তি পেয়েছে।
মিরাজ জামান রাজের পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন ঝিনাইদহ আদালতের সিনিয়র আইনজীবী এ্যাড. সাদাতুর রহমান হাদী। মামলা বিষয়ে তার কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান দীর্ঘ দিন বিচারকার্য শেষে আদালত যে রায় দিয়েছে তাতে নিরপরাধ একজন সমাজসেবীর উপর নিষ্ঠুর হামলার নায্য বিচার হয়নি। আমি বাদীর নিয়োজিত এ্যাডভোকেট হিসেবে এই রায়ে খুশি নই। অপরাধের তুলনায় আসামীর শাস্তি কম হয়েছে। মিরাজ জামান রাজ আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ করেছেন।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© দুরন্ত প্রকাশ কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত ২০২০ ©
Theme Customized BY WooHostBD