1. admin@durantoprokash.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৪:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
ঝিনাইদহে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস পালিত হীরক রাজার মতো আপনাদেরও শেষ পরিণতি হবে: মির্জা আব্বাস ঝিনাইদহে প্রয়াত যুবদল নেতা নুরুল হক মুকুলের স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল ঝিনাইদহে বিএনপির সমাবেশ অনুষ্ঠিত আমাদের সমাজের শিশু ও শিশুর শিক্ষা ঝিনাইদহে সাংবাদিক সাদ্দাম হোসেনের উপর সন্ত্রাসী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন চোরের উৎপাত থেকে বাঁচতে ব্যবসায়ী ও গ্রামবাসীর মানববন্ধন ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এর বিরুদ্ধে দুর্নীতি, আর্থিক অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ ঝিনাইদহে বিএনপি-জামায়াতের নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে আ.লীগের বিক্ষোভ ঝিনাইদহে বেড়েই চলেছে সাপে কাটা রোগী: অ্যান্টিভেনম সংকট!

বিয়ের প্রলোভনে শারীরিক সম্পর্ক: থানায় ভুক্তভোগী গার্মেন্টস কর্মী

দুরন্ত প্রকাশ ডেস্ক:
  • Update Time : সোমবার, ২৪ জুলাই, ২০২৩
  • ৭৮ Time View

বিয়ের প্রলোভনে এক গার্মেন্টস কর্মীর সাথে দীর্ঘ ৯ মাস ধরে একের পর এক শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন ও বিয়ের কথা বলে বাড়িতে এনে নগদ অর্থ ও স্বর্ণালঙ্কার কেঁড়ে নিয়ে মারধরের অভিযোগ উঠেছে সুমন হোসেন নামের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় শৈলকুপা থানায় ৫ জনকে বিবাদী করে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী শারমিন আক্তার (২৯)। তিনি ঠাকুরগাঁও জেলার সদর উপজেলার শিংপাড়া গ্রামের তফিকুল ইসলামের মেয়ে।

অভিযুক্ত (১) মো. সুমন হোসেন (৩৬) ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার ৫ নং কাঁচেরকোল ইউনিয়নের জাঙ্গালিয়া গ্রামের মো. ইব্রাহিম মোল্লার ছেলে।

অভিযোগের সূত্র ধরে জানা যায়, ভুক্তভোগী অনুমান ০২ বছর পূর্ব হতে ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকরি করে। বিবাদী ও একই গার্মেন্টসে চাকরি করত। গার্মেন্সে চাকরি করা কালীন সময়ে উভয়ের মধ্যে প্রেম সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে ০১ নং বিবাদী ভুক্তভোগীকে বিবাহের প্রলোভন দেখিয়ে ঢাকাতে একটি বাসা ভাড়া করে রাখতো এবং ৯ মাস স্বামী স্ত্রী রুপে দিনের পর দিন শারীরিক মেলামেশা করে। একপর্যায়ে ১ নং বিবাদী ভুক্তভোগীকে তার বাড়ীতে নিয়ে বিবাহ করবে মর্মে আশ্বাস প্রদান করে।

গত ১০ জুলাই বিবাদীর বাড়ীতে নিয়ে আসে এবং ভুক্তভোগীকে বিবাহ করেছে বলে তার পরিবারের লোকদের জানায়। পরবর্তীতে সকল বিবাদীগণ যোগসাজসে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে গত ১৬ জুলাই বেলা অনুমান ১২.৩০ ঘটিকার সময় ০৪ ও ০৫ নং বিবাদীদের গ্রামের বাড়ী পদমদী নিয়ে যায়। সেখানে ভুক্তভোগীকে দুই দিন রাখার পরে গত ১৯ জুলাই সকাল অনুমান ১০.৩০ ঘটিকার সময় সকল বিবাদীগণ ভুক্তভোগীর নিকটে থাকা নগদ ৫০ হাজার টাকা সহ তার ব্যবহৃত এক ভরি ওজনের বিভিন্ন ধরনের স্বর্নালঙ্কার কেড়ে নিয়ে মারধর করে বাহির করে দেয়। তারপর হতে বিবাদীগণ তার কোন খোজ খবর রাখে নাই।

অন্যদিকে এ ঘটনার পর গত শুক্রবার (২১ জুলাই) থেকে থেকে বিয়ের দাবিতে ৩ দিন ধরে প্রেমিক সুমনের বাড়িতে অবস্থান করছেন ভুক্তভোগী। তবে এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত সুমন পলাতক রয়েছেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে অভিযোগকারী শারমিন আক্তার জানান, আমার সাথে যা ঘটেছে সেটা আমার জন্য কলঙ্কজনক। আমার যে সম্পদ ছিল সব নিয়ে তার কাছে আসলে তারা সব ছিনিয়ে নিয়েছে। আমি চাই আমাকে স্ত্রীর মর্যাদা দান করুক। এছাড়া মৃত্যু ছাড়া আমার কোন উপায় নেই।

এ বিষয়ে জানার জন্য অভিযুক্ত সুমন হোসেনের সাথে মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন ধরেনি।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য একলাছুর রহমান জানান, তিন দিন ধরে বিয়ের দাবিতে একজন সুমনের বাড়িতে অবস্থান করছেন বলে শুনেছি। এ ঘটনার পর ছেলে পক্ষ ও মেয়ে পক্ষকে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে ডাকা হলেও কেউ এখনও আসেনি।

এ বিষয়ে শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম বলেন, এঘটনা সম্পর্কে আমরা অবগত রয়েছি। থানায় একটি লিখিত অভিযোগ এসেছে। অভিযোগের বিষয়টির তদন্ত চলমান রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© দুরন্ত প্রকাশ কর্তৃক সর্বস্বত্ত্ব সংরক্ষিত ২০২০ ©
Theme Customized BY WooHostBD