Header Border

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল) ২৪.৯৬°সে
শিরোনাম :
ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে যশোর শহরে শুরু হয়েছে বৃষ্টি নিখোঁজ এমপি আনার হত্যাকান্ডে ধোয়াশা ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার কলকাতায় খুন যশোরের কৃতি সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা হোসেনউদ্দীন হোসেনের শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ যশেরে শংকরপুরের নুর হোসেন হত্যাকান্ডের ১নং আসামী রনি গ্রেফতার যশোরে জোরপূর্বক বিষপানে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ কোটচাঁদপুর-ঢাকা সরাসরি রেল যোগাযোগ বহাল রাখার দাবী উপজেলাবাসীর শৈলকুপায় ছাগলে ঘাস খাওয়া কেন্দ্র করে হামলা- আহত ২ ঝিনাইদহে ব্রি ধান-১০০’র শস্য কর্তন ও মাঠ দিবস ঝিনাইদহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ২য় দিনের কর্মবিরতি

আফগানিস্তান নিয়ে ভারত কেন চিন্তিত

আফগানিস্তানে ভারতের প্রধান আগ্রহ আঞ্চলিক যোগাযোগে দেশটির গুরুত্বের জন্য। নিউ সিল্ক রোড স্ট্র্যাটেজির পুরো ধারণা ছিল মধ্য এশিয়া ও দক্ষিণ এশিয়াকে (বিশেষ করে ভারত) আফগানিস্তানের মাধ্যমে বাণিজ্য, ট্রানজিট ও জ্বালানি রুট দিয়ে সংযুক্ত করা। ২০১১ সালে আফগানিস্তান পুনর্গঠনের জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়ে একটি কৌশলগত অংশীদারত্ব চুক্তি করেছিল ভারত। এরপর ১০ বছর ধরে আফগানিস্তানে বিপুল অর্থ ভারত বিনিয়োগ করেছে। তালেবান নিয়ন্ত্রণের পর এ বিনিয়োগের কী হবে, এখন সেটাই প্রশ্ন।

আফগানিস্তানে ভারতের যত বিনিয়োগ

কাবুলে আফগান পার্লামেন্ট ভারত তৈরি করেছিল। এতে আনুমানিক ৯ কোটি ডলার বিনিয়োগ হয়। ২০১৫ সালে ভবনটি চালু হয়। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভবনটি উদ্বোধন করেন। সে সময় তিনি ভবনটিকে আফগানিস্তানের গণতন্ত্রের প্রতি ভারতের শ্রদ্ধা হিসেবে বর্ণনা করেছিলেন। বিশেষ করে ভবনটির একটি ব্লকের নাম রাখা হয়েছিল প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারি বাজপেয়ির নামে।

আফগানিস্তানে ইরান সীমান্তের কাছাকাছি এলাকায় ২১৮ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়ক নির্মাণ করেছে ভারতের বর্ডার রোড অর্গানাইজেশন। কান্দাহার, গজনি, কাবুল, মাজহর-ই-শরিফ ও হেরাত শহরকে ছুঁয়ে গেছে এ রাস্তা। পাকিস্তানকে এড়িয়ে এ রাস্তা দিয়ে ইরানের চাবাহার বন্দর ব্যবহার করতে পারে নয়াদিল্লি। জরঞ্জ-দেলারাম নামের এই সড়ক তৈরিতে ব্যয় হয়েছিল প্রায় ১৫ কোটি ডলার। এটি তৈরি করেছিলেন ৩০০ ভারতীয় ইঞ্জিনিয়ার। কাজ চলাকালীন তাঁদের মধ্যে ১১ জনের মৃত্যুও হয়।

আফগানিস্তানে ভারতের একটি উল্লেখযোগ্য সাহায্য হলো বিদ্যুৎ অবকাঠামোর সংস্কার। কাবুলে বিদ্যুৎ সরবরাহ বাড়ানোর জন্য বাঘলান প্রদেশের রাজধানী পুল-ই-খুমরি থেকে ২০০ কেভি ডিসি ট্রান্সমিশন লাইন স্থাপন করা হয়। সেই সঙ্গে ভারতের প্রকৌশলীরা প্রদেশগুলোতে টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার পুনরুদ্ধার করে।
শিশুদের জন্য চিকিৎসাকে নতুন করে গড়েছে নয়াদিল্লি। ইন্ডিয়ান মেডিকেল মিশনের আওতায় আফগানিস্তানে জায়গায় জায়গায় বিনা মূল্যের চিকিৎসা পরিষেবা দেওয়া হয়। এ ছাড়া বহু ক্লিনিক তৈরি করেছে নয়াদিল্লি।

আফগানিস্তানে ভারতের তৈরি করা এই সালমা বাঁধ উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ২০১৬ সালে আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির সঙ্গেই এই বাঁধ উদ্বোধনে অংশ নিয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ভারত-আফগানিস্তানের বন্ধুত্বের নিশানস্বরূপ আফগানিস্তানের হেরাত প্রদেশে এই সালমা বাঁধ তৈরি করা হয়।

শুধু তা–ই নয়, ভারত সরকার আফগানিস্তানকে ২০০ মিনিবাস, ৪০০ বাস, ১০৫ সরকারি গাড়ি, ২৮৫টি সেনার গাড়ি, ৫টি শহরে ১০টি অ্যাম্বুলেন্স, ৩টি এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান উপহার হিসেবে দিয়েছিল। বিশ্লেষকেরা বলছেন, তালেবান নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেওয়ায় এখন যদি ভারতের সঙ্গে সে দেশের সব বাণিজ্যিক সম্পর্ক বন্ধ হয়ে যায়, তাহলে এত দিনের সুসম্পর্কের কোনো পরিণতি হচ্ছে না। এ অবস্থায় সরকারকে অবশ্যই তালেবান নীতি নিতে হবে।

সূত্র: আনন্দবাজার, রিপাবলিক ওয়ার্ল্ড ডটকম

Print Friendly, PDF & Email

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

সৌদি-ইসরায়েলের নতুন সম্পর্ক ভাঙা হামাসের উদ্দেশ্য: বাইডেন
ইসরায়েলি হামলার নিন্দা না করা ইউরোপ আমেরিকার ভণ্ডামি
ইসরায়েলের জন্য বিলিয়ন ডলার তহবিল চাইব
ফিলিস্তিনিদের প্রোফাইলে ‘সন্ত্রাসী’ শব্দ, ক্ষমা চাইল ইনস্টাগ্রাম
১৩ দিনে ১৫০০ শিশুকে হত্যা করল ইসরায়েল
শিশুদের আরবিসহ বিদেশি ভাষা শেখানো নিষিদ্ধ করল ইরান

আরও খবর

Design & Developed By VIRTUAL SOFTBOOK Premium Web & Software Solutions